নির্বাচন আপনার ছেলে-মেয়ের বিয়ে নয়: প্রধানমন্ত্রীকে খসরু

আগামী জাতীয় নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহণ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মন্তব্যের সমালোচনা করে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ‘নির্বাচন আপনার ছেলে বা মেয়ের বিয়ে নয়, যে আপনি আমন্ত্রণ জানাবেন। এটা বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের অনুষ্ঠান। আপনি চান বা না চান বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষ এটা ঠিক করবে। এটা আপনার ছেলে-মেয়ের বিয়ে নয় যে আপনি যাকে ইচ্ছে দাওয়াত দেয়া বা না দেয়ার সিদ্ধান্ত নেবেন।’
আজ শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এক যুব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। ‘বাংলাদেশ ইয়ুথ ফোরাম’ নামের একটি সংগঠন এ সমাবেশের আয়োজন করে।
আমির খসরু বলেন, এই যে নির্বাচন হচ্ছে, নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা প্রয়োজন তাই অংশ নিচ্ছি। কিন্তু দিন শেষে আমি বাংলাদেশে নির্বাচনের কোনো লক্ষণ দেখছি না। আমি নির্বাচন দেখছি না। আমি চোখের সামনে দেখতে পাচ্ছি- বাংলাদেশের মানুষকে বাইরে রেখে একটা নীলনকশার আয়োজন।
সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিভাগীয় কমিশনারদের নিয়ে যে সমন্বয় কমিটি করা হয়েছে তারও সমালোচনা করেন বিএনপির এই নেতা।
তিনি বলেন, ‘এটা ভোট ডাকাতির জন্য। নির্বাচনের মধ্যে একটা বাইরের শক্তি দেয়া হলো। এটা সংবিধান বিরোধী, আইন বিরোধী। নির্বাচন কমিশনের আত্মসম্মানবোধ নেই। তাদের আত্মসম্মান থাকার কারণও নেই। তারা এই নীলনকশার অংশ। দলীয় লোকজনদের দিয়ে নির্বাচন কমিশন। বাকি প্রতিষ্ঠানগুলোও সরকারি দলের লোকজনের নিয়ন্ত্রণে।’
তিনি আরও বলেন, আমরা গণতন্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধাশীল বলে নির্বাচন কমিশনে বিভিন্ন প্রতিবেদন দিচ্ছি। কিন্তু তাদের কাছে আমাদের কোনো প্রত্যাশা নেই।
দেশে আইনের শাসন নেই দাবি করে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যেখানে আইনের শাসন শেষ হয়ে যায় সেখানে মানুষ আইনজীবীদের দায়িত্বশীল ভূমিকা আশা করে। আমি আশা করি আগামী দিনে আইনজীবীরা আরও শক্তিশালী ভূমিকা পালন করবে।
আয়োজক সংগঠনের উপদেষ্টা কৃষিবিদ মেহেদী হাসান পলাশের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান, যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কেন্দ্রীয় নেতা আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ প্রমুখ।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *